রবিবার
১লা আগস্ট ২০২১
City News Banner

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের তিব্বত সফর

দুর্বল দেশগুলোকে আর্থিক সহায়তার আহ্বান পরিবেশমন্ত্রীর

ম্যাচ ও সিরিজ সেরা সৌম্য সরকার

City News Banner
সর্বশেষ

Loading...

মন্দা কাটিয়ে চামড়ার দাম বাড়ছে

মন্দা কাটিয়ে চামড়ার দাম বাড়ছে

হুট করেই ২০১৮ সালে চামড়ার দাম পড়ে যায়। গত তিন বছর কোরবানির ঈদে চামড়া কিনে বেশ লোকসান গুনেছিলেন ব্যবসায়ীরা। টানা তিন বছরের মন্দা কাটিয়ে এবার চামড়ার দাম কিছুটা বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে। পশু কোরবানি দেয়ার পর থেকেই ফড়িয়ারা কাঁচা চামড়া সংগ্রহ শুরু করেছেন।

তথ্য বলছে, ২০১৭ সালে কাঁচা চামড়ার দাম ছিল ১৭০০ টাকা, ২০১৮ সালেতা হয় ১২০০ টাকা এবং ২০১৯ সালে বিক্রি হয় ৪০০ টাকায়। ২০২০ সালে একই মাপের চামড়ার দাম ঠেকে ২০০-৩০০ টাকায়।

ট্যানারি মালিকরা বলছেন, এবার সরকারের বেধে দেয়া দামে চামড়া কিনলে মৌসুমি ব্যবসায়ীরা ঝুঁকিতে পড়বেন না। অবশ্য আগের তিন বছর দাম পড়ে যাওয়ার জন্য আন্তর্জাতিক বাজারকেই দায়ী করেন তারা।

এবার লবণজাত প্রতি বর্গফুট গরুর চামড়ার দাম ঢাকায় ৪০-৪৫ টাকা এবং ঢাকার বাইরে ৩৩-৩৭ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। গত বছর ঢাকায় ৩৫-৪০ টাকা এবং ঢাকার বাইরে ২৮-৩২ টাকা ছিল।

বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত উল্লাহ বলেন, 'গত তিন মাস ধরে আন্তর্জাতিক বাজারে চামড়ার দাম একটু বাড়তি। এর মধ্যেই ইউরোপসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে চামড়ার চাহিদা বাড়ছে। ফলে গতবারের চেয়ে এবার চামড়ার দাম বাড়তে পারে। তবে সরকারের নির্ধারণ করে দেয়া দামের চেয়ে বেশি দামে মৌসুমি ব্যবসায়ীরা যেন না কেনেন।'

তিনি বলেন, 'মৌসুমী ব্যবসায়ীরা যদি লোকসান এড়াতে চান তাহলে চামড়া আড়তে অথবা ট্যানারিতে বুধবার (২১ জুলাই) রাত দশটা থেকে এগারটার মধ্যে পৌঁছাতে হবে। রাত ১১টার বেশি হলে লোকসানে পড়বেন তারা।'

বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ বলেন, 'আন্তর্জাতিক চামড়ার বাজার গতবারের চেয়ে এবার একটু ভালো মনে হচ্ছে। তবে সরকার যেহেতু গতবারের চেয়ে দাম বাড়িয়ে চামড়ার দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে। মৌসুমী ব্যবসায়ী যেন সেই দামেই চামড়া ক্রয় করেন।'

চামড়া ব্যবসায়ীরা বলছেন, গতবারের চেয়ে চামড়ার দাম না বাড়লেও, এবার অন্তত কমবে না। কারণ, করোনার টিকা আসার পর চামড়া রফতানির বাজারও বাড়তে শুরু করেছে।

সম্রাট/নির্জন