দেশে সংক্রমণের ৯ শতাংশ ওমিক্রনের উপধরন 'বিএ পয়েন্ট ফাইভ' দ্বারা আক্রান্ত। বাকি ৯১ শতাংশ মানুষ আক্রান্ত, ওমিক্রনের আরেক উপধরন 'বিএ পয়েন্ট টু'র মাধ্যমে। এক মাসে ১১টি নমুনা বিশ্লেষণ করে এই তথ্য জানিয়েছে আইইডসিআর। তারা আরও জানায়, দেশে ওমিক্রনের নতুন উপধরন, 'বিএ পয়েন্ট ফাইভ' শনাক্ত হয় গেল ২৪ মে।

বিশেষজ্ঞদের ধারণা, এটি রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতাকে ফাঁকি দিতে সক্ষম। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, দেশে এখন করোনা সংক্রমণ হার ১৩ শতাংশের বেশি।

গত মে মাসের শেষের দিকে দক্ষিণ ভারতে এই সাব ভেরিয়েন্ট শনাক্ত হয়। এই উপধরনটি দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনা সংক্রমণের পঞ্চম ঢেউ এবং সম্প্রতি ভারতে করোনার তৃতীয় ঢেউ এর জন্য দায়ী বলে বিজ্ঞানীরা মনে করছেন। ভ্যাকসিন নেওয়া ব্যক্তিরাও এই সাবভ্যারিয়েন্ট দ্বারা আক্রান্ত হচ্ছেন। আগামী দিনে এই উপধরন বর্তমানে সংক্রমণশীল অন্যান্য উপধরনের তুলনায় বেশি সংক্রমণ ঘটাতে পারে বিজ্ঞানীরা মনে করছেন।

আরআই