কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে অভিযান চালিয়ে সরকারি বিধি উপেক্ষা করে অবৈধভাবে বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগনোস্টিক সেন্টার পরিচালনা এবং লাইসেন্স না থাকার দায়ে ৩টি বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগনোস্টিক সেন্টারকে সিলগালা করে বন্ধ করে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। 

কুড়িগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন ডা. মঞ্জুর-এ-মুর্শেদের নেতৃত্বে সোমবার (৩০ মে) বিকাল ৩টা থেকে ৫টা পর্যন্ত এ অভিযান পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ মেজিস্ট্রেট নিশাত তামান্না। 



অভিযান চলাকালে মেডিক্যাল প্র্যাকটিস এবং বেসরকারি ক্লিনিক ও ল্যাবরেটরি (নিয়ন্ত্রণ) অধ্যাদেশ-১৯৮২ আইন অনুযায়ী নাগেশ্বরী পৌর শহরের পপুলার ডায়াগনোস্টিক সেন্টারের ৪ জন শেয়ার হোল্ডারকে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন এবং সেই সঙ্গে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। পরে দণ্ডপ্রাপ্ত রোকনুজ্জামান (৩২), আল-মামুন (২৭), নাঈম সরকার (২৮) নামের ৩ জনকে আটক করে কুড়িগ্রাম জেলহাজতে প্রেরণ করেন। এ সময় দণ্ডপ্রাপ্ত আব্দুস সালাম (৩০) পালিয়ে যায়। এ ছাড়াও নাগেশ্বরী-ফুলবাড়ী সড়কের কলেজ মোড়স্থ সিটি ডিজিটাল ডায়াগনোস্টিক সেন্টার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখানোর আশ্বাস দিলে সেখানে মুচলেকা নিয়ে সিলগালা করা হয়। অপরদিকে রুশা ডিজিটাল ডায়াগনোস্টিক সেন্টার অভিযান চালানোর আগেই তারা প্রতিষ্ঠানের মেইন গেটে তালাবদ্ধ করে সটকে পড়েন। পরে ওই প্রতিষ্ঠানও সিলগালা করা হয়। 

কুড়িগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন ডা. মঞ্জুর-এ-মুর্শেদ বলেন, দেশব্যাপী অনিবন্ধিত এবং অবৈধ ক্লিনিক ও ডায়াগনোস্টিক সেন্টারগুলোর বিরুদ্ধে যে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে তারই অংশ হিসেবে কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতেও অভিযান পরিচালনা করছি। আমরা এখন পর্যন্ত ৩টি ডায়াগনোস্টিক সেন্টারকে সিলগালা করে বন্ধ করে দিয়েছি। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।


সাজেদ/ এএল