আসামির দায়ের কোপে কনস্টেবল জনি খানের ‘বিচ্ছিন্ন’ হয়ে যাওয়া কব্জি জোড়া লাগানো হয়েছে। সোমবার (১৬ মে) জনি খানের সঙ্গে থাকা লোহাগাড়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ভক্ত চন্দ দত্ত বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

চিকিৎসকের বরাতে ভক্ত চন্দ দত্ত বলেন, ’রবিবার (১৫ মে) বিকাল ৫টায় ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে তার অস্ত্রোপচার শুরু হয়। দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে অস্ত্রোপচারটি সফলভাবে সম্পন্ন হয়। জনি খান বর্তমানে ভালো আছেন। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেছেন।’

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সাতকানিয়া সার্কেল) মো. শিবলী নোমান বলেন, ’জনি খানের ওপর হামলার ঘটনায় লোহাগাড়া থানায় একটি মামলা হয়েছে। বান্দরবান সীমান্ত এলাকা থেকে হামলার সঙ্গে জড়িত কবির আহম্মদের স্ত্রী রুবি বেগমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কবির আহম্মদকে গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।’

রবিবার (১৫ মে) সকালে চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলায় অভিযানে গিয়ে আসামির দায়ের কোপে হাতের কব্জি ‘বিচ্ছিন্ন’ হয় কনস্টেবল জনি খানের। একই ঘটনায় আরও এক কনস্টেবল আহত হন। ঘটনার পর পালিয়ে যান আসামি কবির আহম্মদ।

জেইউ/এএল