ক্রিকেটকে বলা হয় জেন্টেলম্যানস গেমস। অর্থাৎ ভদ্র লোকের খেলা। আর সেই খেলাকে কলুষিত করেছে জুয়াড়িরা। আইপিএলের দ্বাদশ আসরের বেশ কিছু ম্যাচের ফলাফল পাল্টে দিয়েছিল বাজিকররা। ভারতের সেন্ট্রাল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (সিবিআই) জানিয়েছে- ম্যাচ পাতানোর সঙ্গে জড়িত জুয়াড়িদের তথ্য সরবরাহ করতো পাকিস্তান।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৯ আইপিএল আসরটির কথিত সেই বাজিগুলোর তদন্তের জন্য মামলা দায়ের করেছে সিবিআই। মামলায় দিল্লির দিলীপ কুমার এবং হায়দ্রাবাদের গুররাম বাসু এবং গুররাম সতীশকে অভিযুক্ত হিসেবে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।

সংস্থাটি জানিয়েছে, ‘পাকিস্তান থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে চক্রটি ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচের ফলাফল প্রভাবিত করছে। আইপিএল ম্যাচ সম্পর্কিত বাজির আড়ালে, সাধারণ জনগণকে বাজি ধরতে প্ররোচিত করেও প্রতারণা করছে তারা।

বাজির উদ্দেশ্যে চক্রটি বিভিন্ন ব্যাংকের কর্মকর্তাদের সাহায্যে ভুয়া অ্যাকউন্ট খোলে। এসব ক্ষেত্রে তারা ভুল জন্ম তারিখ অথবা একাধিক জন্ম তারিখ ব্যবহার করত। অ্যাকাউন্ট খুলতে জাল আইডিও ব্যবহার করেছে বলে জানিয়েছে দেশটির কেন্দ্রীয় সংস্থাটি।

সিবিআই আরও জানিয়েছে, ক্রিকেটে ম্যাচ পাতানোর সঙ্গে জড়িত চক্রটি ২০১০ সাল থেকে সক্রিয়। বাজিকররা ভারতের সাধারণ জনগণের থেকে পাওয়া অর্থের একটা অংশ বিদেশে থাকা সদস্যের কাছে পৌঁছে দিতো। এ জন্য তারা ভারতে নিষিদ্ধ হাওয়ালা ট্রানজেকশনের মাধ্যমে লেনদেন করতো বলেও জানিয়েছে সিবিআই।

জেডআই/ডা