অবশেষে পাওয়া গেলো সমাধান। এখন জামালপুরের তিনটি অডিটোরিয়ামে শাকিব খান ও পূজা চেরি অভিনীত ‘গলুই’ সিনেমাটি চলতে আর কোনো বাধা নেই। সিনেমাটির নির্মাতা এস এ হক অলিক নিজেই খবরটি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, তথ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে এখন থেকে পুনরায় জামালপুরের তিনটি অডিটোরিয়ামে ‘গলুই’ দেখা যাবে। 

উচ্ছ্বসিত হয়ে সিনেমা অঙ্গনের সবার প্রতি ও সাংবাদিকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তিনি। তথ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা প্রসঙ্গে অলিক বলেন, গত মঙ্গলবার বিকালে মন্ত্রণালয় থেকে জামালপুরের জেলা প্রশাসক ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সিনেমাটি প্রদর্শন করতে বলা হয়েছে। 

কিছুক্ষণ আগেই এর অনুমতি দেয়ার কথা শুনেছি। তাদের এমন সিদ্ধান্তে আমরা খুশি। এই সরকার আমাদের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির উন্নয়নের জন্য কাজ করছে, তার প্রমাণ আমরা আবারো পেলাম। ‘গলুই’ সিনেমাটি ঈদ উপলক্ষে দেশের ২৮টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়

এর মধ্যে জামালপুরের তিনটি অডিটোরিয়াম রয়েছে। সিনেমাটির অধিকাংশ শুটিং হয়েছে জামালপুরে। কিন্তু এই জেলায় মাত্র একটি সিনেমা হল। তাই সংশ্লিষ্টরা উদ্যোগ নিয়ে সেখানকার তিনটি অডিটোরিয়ামে ‘গলুই’ প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করেন। ঈদের দিন থেকে ওইসব অডিটোরিয়ামে দর্শকদের উপচে পড়া ভিড় ছিল। 

সবাই উচ্ছ্বাস নিয়ে সিনেমাটি দেখছিল। কিন্তু ঈদের ক’দিন পরই হুট করে সেখানকার জেলা প্রশাসক অডিটোরিয়ামে ‘গলুই’-এর প্রদর্শনী বন্ধ করে দেন। এ নিয়ে সিনেমা অঙ্গনে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। অবশেষে সেই প্রতিবাদের ফল এলো। উল্লেখ্য, ২০২০-২১ অর্থবছরে সরকারি অনুদান পেয়েছিল ‘গলুই’। 

সহ-প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু। এতে শাকিব খান ও পূজা ছাড়াও অভিনয় করেছেন আজিজুল হাকিম, সমু চৌধুরী, ঝুনা চৌধুরী প্রমুখ। শাকিব খান বর্তমানে আমেরিকায় রয়েছেন। তাই সরাসরি ঈদের ছবির প্রচারণায় থাকতে পারেননি তিনি। তবে নিজের ফেসবুক পেজে নিয়মিত তার ঈদের ছবি ‘গলুই’ ও ‘বিদ্রোহী’র প্রচারণা করছেন তিনি। আসছে কোরবানির ঈদেও শাকিব খানের নতুন ছবি মুক্তি পেতে যাচ্ছে বলেও শোনা যাচ্ছে।

এইচএ