সুস্থ হয়ে আবারও শ্রেণিকক্ষে ফিরতে চান রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) শিক্ষার্থী বীণা রানি। বীণা কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৬-১৭ বর্ষের নবম ব্যাচের ছাত্রী। তিনি বর্তমানে কিডনি-সংক্রান্ত জটিলতায় ভুগছেন।

পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে বীণার অসুস্থতা ধরা পড়ে। তিনি দুই বছর ধরে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল এবং ভারতের ক্রিশ্চিয়ান মেডিক্যাল কলেজ (সিএমসি) হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এ জন্য ইতিমধ্যে পরিবারের ৮ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে।

বর্তমানে বীণার দুটি কিডনিই অকেজো এবং তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটছে। প্রতি মাসে তার ওষুধ ও ডায়ালাইসিসের জন্য প্রায় ২০ হাজার টাকা ব্যয় হচ্ছে। চিকিৎসকরা অতি দ্রুত তার কিডনি প্রতিস্থাপনের পরামর্শ দিয়েছেন। এ জন্য প্রায় ২০ লাখ টাকার প্রয়োজন, যা তার পরিবারের একার পক্ষে বহন করা অসম্ভব।

বীণার বাড়ি পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলায়। তার বাবা এখন বার্ধক্যজনিত কারণে অসুস্থ। বড় ভাই সংসার চালাচ্ছেন। ছোট ভাই কলেজছাত্র।

এ বিষয়ে বীণার বড় ভাই নির্মল বলেন, ‘এমন পরিস্থিতিতে সমাজের বিত্তশালীদের কাছে সহায়তা চাই। আমার বোন আবারও ক্যাম্পাসের নির্মল বাতাসে স্বাভাবিকভাবে ক্লাস করতে চায়।’

বীণার বন্ধু গোলাম সারোয়ার বলেন, ‘আমার বান্ধবীর জন্য আপনারা মানবতার হাত বাড়িয়ে দেন, যেন আমরা আবারও একসঙ্গে চলতে পারি প্রিয় ক্যাম্পাসে।’

সাকিব/জনি 
ফিরোজ