কাঠমিস্ত্রির কাজের ফাঁকে পড়াশোনা করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম বর্ষে ভর্তি পরীক্ষা ২০২০-২১ সেশনে 'বি' ইউনিটে প্রথম হওয়া মো. মোস্তাকিম আলীকে সংবর্ধনা দিয়েছেন মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক। মোস্তাকিম রাজশাহী জেলার তানোর থানার বাঁধাইড় মিশনপাড়ার মো. শামায়ুন আলীর ছেলে।

বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় আরএমপি সদরদফতরে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের উদ্যোগে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে পুলিশ কমিশনার মোস্তাকিম আলীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান সম্মাননা স্মারক তুলে দেন। সেই সঙ্গে শিক্ষা উপকরণ কেনার জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে পুলিশ কমিশনার বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করার লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছেন। সেই লক্ষ্য অর্জনে মোস্তাকিমের মতো তরুণ মেধাবীদের এগিয়ে আসতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ‘মেধাবীদের মেধা বিকাশে এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে পৃষ্ঠপোষকতা করতে হবে। তবেই বাংলাদেশ উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হবে। মোস্তাকিমসহ যেকোনো মেধাবীদের প্রয়োজনে আরএমপি পাশে থাকবে বলেও জনান।

পুলিশ কমিশনারের কাছ থেকে সংবর্ধনা পেয়ে অত্যন্ত আনন্দিত উচ্ছ্বাসিত মোস্তাকিম। তিনি বলেন, ‘পুলিশ কমিশনার আমার মতো ছেলেকে গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে এনে সংবর্ধনা দিয়ে সম্মানিত করেছেন। এই সংবর্ধনা আমাকে ভবিষ্যতে দেশের জন্য কাজ করার অনুপ্রেরণা জোগাবে।’

প্রসঙ্গত, কাঠমিস্ত্রির কাজের ফাঁকে পড়াশোনা করে ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম হওয়ার বিষয়টি নজরে এলে পুলিশ কমিশনার মোস্তাকিমের বিষয়ে বিস্তারিত খোঁজখবর নেন। তার বাবা পেশায় একজন কাঠমিস্ত্রি। সে দুই ভাই এক বোনের মধ্যে সবার বড়। খুব পরিশ্রমী মেধাবী। মোস্তাকিম প্রাথমিক শিক্ষা শেষ করেই বাবার পেশায় যুক্ত হন। দিনে কাঠমিস্ত্রির কাজ করলেও রাতে পড়াশোনা করত।

তানোর মুন্ডুমালা সরকারি উচ্চবিদ্যালয় হতে ২০১৭ সালে জিপিএ  দশমিক ৫৫ নিয়ে মাধ্যমিক এবং ফজর আলী মোল্লা ডিগ্রি কলেজ হতে ২০২০ সালে জিপিএ  দশমিক ৮৩ পেয়ে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন।

পরে চাঁপাইনবাবগঞ্জের আদিনা ফজলুল হক ডিগ্রি কলেজে ইংরেজি বিষয়ে অনার্সে ভর্তি হন। পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আকাঙ্ক্ষা থেকে এইচএসসিতে পুনরায় মানোন্নয়ন পরীক্ষা দেন এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। প্রস্তুতির জন্য ভর্তি পরীক্ষার ১৫ দিন আগে তার পিতার কাছ থেকে কাঠমিস্ত্রির কাজ হতে অব্যাহত নেন। এরপর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্নাতক প্রথম বর্ষ ২০২০-২১ ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেবিইউনিটের গ্রুপ- ৮০ দশমিক ৩০ নম্বর পেয়ে প্রথম স্থান অর্জন করেন।

নূর/এম. জামান