শনিবার   ০১:১০ পূর্বাহ্ন
২৩শে অক্টোবর, ২০২১  |  ৮ই কার্তিক, ১৪২৮  |  ১৭ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৩ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
লগইন
সর্বশেষ

Loading...

ক্ষুধার জ্বালায় নয়, পুত্রবধূর সঙ্গে অভিমান করে বৃদ্ধের আত্মহত্যা

ক্ষুধার জ্বালায় নয়, পুত্রবধূর সঙ্গে অভিমান করে বৃদ্ধের আত্মহত্যা

ক্ষুধার জ্বালায় নয়, পুত্রবধূর সঙ্গে অভিমান করে বৃদ্ধের আত্মহত্যা

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ইদ্রিস আলী (৬৯) নামে এক বৃদ্ধ গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) সকালে উপজেলার প্রাগপুর ইউনিয়নের মহিষকুন্ডি হাতিশালা মোড় এলাকার নিজ বাড়ি তিনি আত্মহত্যা করেন। ইদ্রিস আলী ওই এলাকার মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে।

এ ঘটনার পর কুষ্টিয়ায় ক্ষুধার জ্বালা সইতে না পেরে কৃষক বা বৃদ্ধ আত্মহত্যা করেছেন বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ করা হয়। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে তিনি ক্ষুধার জ্বালায় নয়, পুত্রবধূর সঙ্গে অভিমান করে আত্মহত্যা করেছেন। এমন তথ্যই জানিয়েছে দৌলতপুর থানা পুলিশ।

বুধবার (১৩ অক্টোবর) দুপুরে দৌলতপুর থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) শফিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, নাতনিকে পেটানো নিয়ে পুত্রবধূর সঙ্গে ইদ্রিস আলীর মনোমালিন্য হয়। এরপর তিনি গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেন। ইদ্রিস আলী পাইলস রোগে আক্রান্ত ছিলেন।

তিনি আরও বলেন, গতকাল স্থানীয় এক চৌকিদারের দেওয়া খবরের ভিত্তিতে ইদ্রিস আলীর  ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। পরে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা করা হয়েছে। 

পুলিশের এই কর্মকর্তা জানান, ক্ষুধার জ্বালায় তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে। আসলে এটি সত্য নয়। বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভ্রান্ত ছড়ানো হচ্ছে।

বয়স্ক ভাতার বিষয়ে পুলিশ কর্মকর্তা জানান, ইদ্রিস আলীর বয়স ভোটার আইডিতে ৬৯ বছরের একটু বেশি। নিয়ম অনুযায়ী বয়স না হাওয়ার কারণে তার ভাতার কার্ড হয়নি।

টিআর/ডাকুয়া