শুক্রবার   ০৭:০৯ পূর্বাহ্ন
১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১  |  ২রা আশ্বিন, ১৪২৮  |  ১০ই সফর, ১৪৪৩ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
লগইন
সর্বশেষ

Loading...

বর্ণিল পোশাকে আফগান নারীদের প্রতিবাদ

বর্ণিল পোশাকে আফগান নারীদের প্রতিবাদ

বর্ণিল পোশাকে আফগান নারীদের প্রতিবাদ

সারা বিশ্বে ছড়িয়ে থাকা আফগান নারীরা প্রতিবাদের ভাষা হিসেবে বর্ণিল পোশাক বেছে নিয়েছেন। তালেবানকে হুঁশিয়ার করে বলেছেন, ‘আমার পোশাকে হাত দিও না।’ নিজ দেশে তালেবান নতুন নিয়ন্ত্রণকর্তার আসনে বসার পর নারীর পোশাক-পরিচ্ছদের ওপর যে খড়গ নেমে এসেছে, তারই প্রতিবাদে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে # ডু নট টাচ মাই ক্লথ- ক্যাম্পেইন শুরু করেছেন তারা।

আফগানিস্তানের ঐতিহ্যবাহী বর্ণময় সব পোশাকে নিজেদের সাজিয়ে তারা হাজির হচ্ছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।ডোন্ট টাচ মাই ক্লথকিংবাআফগানিস্তান কালচারহ্যাশট্যাগে ফেসবুক-টুইটারে চলছে প্রতিবাদ।

কট্টর ইসলামপন্থি তালেবান দুই দশক পর আফগানিস্তানে ক্ষমতায় বসার পর নারীর স্বাধীনভাবে চলার পথ হয়েছে সঙ্কুচিত। তার প্রতিবাদে আফগান নারীরা যখন তালেবানের বন্দুকের সামনে দাঁড়িয়ে বিক্ষোভে নেমেছেন, ঠিক তখনই বিপরীত চিত্রে তালেবানের পক্ষ নিয়ে দুই দিন আগে হিজাব-বোরকায় আচ্ছাদিত একদল নারীও কাবুলে সমাবেশ করে।

তাদের সেই সমাবেশ থেকে বলা হয়, ‘মেকআপ নিয়ে আধুনিক পোশাক পরা আফগানিস্তানের মুসলিম নারীদের প্রতিচ্ছবি নয়এবংশরিয়াহ আইনের বিরোধী বিদেশি নারী অধিকার আমরা চাই না

সেই সমাবেশের পরই আফগানিস্তানের ঐতিহ্যবাহী বর্ণিল পোশাক পরে প্রতিবাদের সূত্রপাত হয়।

আফগানিস্তানের আমেরিকান ইউনিভার্সিটির ইতিহাস বিভাগের সাবেক অধ্যাপক . বাহার জালালি সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিবাদের সূচনা করেন হ্যাশট্যাগ দুটি ব্যবহার করে। সবুজ রঙা এক ঐতিহ্যবাহী পোশাক পরে টুইটারে হাজির হন তিনি। অন্যদেরও তিনি অনুপ্রাণিত করেন তাকে অনুসরণ করতে, দেখাতে যে এটিই আফগানিস্তানেরপ্রকৃত চিত্র

বাহার জালালি বলেন, ‘আজ আফগানিস্তানের স্বকীয়তা, স্বাধীনতা হুমকির মুখে; এটিই আমার সবচেয়ে বড় উদ্বেগ। আমি বিশ্ববাসীকে জানাতে চাইযেটি তারা মিডিয়ায় দেখেছে (তালেবান সমর্থক নারীদের সমাবেশ), সেটি আমাদের সংস্কৃতি নয়, সেটি আমাদের পরিচিতি নয়।

শামীম/এম. জামান