শুক্রবার   ০৭:০৯ পূর্বাহ্ন
১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১  |  ২রা আশ্বিন, ১৪২৮  |  ১০ই সফর, ১৪৪৩ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
লগইন
সর্বশেষ

Loading...

কেজিতে ৫ টাকা কমলো চিনির দাম

কেজিতে ৫ টাকা কমল চিনির দাম-

কেজিতে ৫ টাকা কমল চিনির দাম-

হঠাৎ করেই উত্তাপ ছড়িয়ে পড়েছিল চিনির বাজারে। লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়ে ৬০ টাকার চিনি ঠেকেছিল ৮০ টাকায়। অবশেষে চিনির বাজারে কিছুটা লাগাম টেনেছে সরকার। ভোক্তাপর্যায়ে কেজিতে ৫ টাকা কমানো হয়েছে। ফলে এখন থেকে প্রতি কেজি খোলা চিনির সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য ৭৪ টাকা। অন্য দিকে প্যাকেটজাত চিনির কেজিপ্রতি মূল্য ৭৫ টাকা।

এ দিকে কয়েক মাস আগেও খোলাবাজারে চিনির দাম ছিল ৬৮ টাকা। এক মাসের ব্যবধানে তা বেড়ে পৌঁছায় ৮০ টাকায়। এমন পরিস্থিতিতে ৫ টাকা কমিয়ে দাম বেঁধে দিয়েছে সরকার।

বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) চিনির এই দাম নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ সুগার রিফাইনারস অ্যাসোসিয়েশন।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (আমদানি অনু বিভাগ) এ এইচ এম সফিকুজ্জামান জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার থেকেই নতুন দাম কার্যকর হবে।

গত ৫ সেপ্টেম্বর আন্তর্জাতিক বাজারে চিনির দাম বাড়তে থাকায় প্রতি কেজি খোলা চিনির দাম ৮৫ টাকা ও প্যাকেটজাত চিনির দাম ৯৮ টাকা করার প্রস্তাব করে বাংলাদেশ সুগার রিফাইনারস অ্যাসোসিয়েশন। ওই দিন সংস্থাটি জানায়, আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত ও পরিশোধিত চিনির মূল্য ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে। আন্তর্জাতিক বাজারে ক্রমাগত মূল্যবৃদ্ধি সত্ত্বেও দেশের চাহিদা এবং জোগানের মধ্যে ভারসাম্য রাখার স্বার্থে চিনি আমদানি করে যাচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। যেহেতু আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ছে, তাই দেশীয় বাজারে তার প্রভাব পড়াই স্বাভাবিক। এ অবস্থায় প্রতি কেজি খোলা চিনির দাম ৮৫ টাকা ও প্যাকেটজাত চিনির দাম ৯৮ টাকা করার প্রস্তাব পুনর্নির্ধারণের প্রস্তাব করা হলো।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এ এইচ এম সফিকুজ্জামান বলেন, ‘মূল্য নির্ধারণের ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক বাজার পরিস্থিতি বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। গত ৮ থেকে ১০ বছর দেশে চিনির বাজার ৬০ টাকার আশপাশে ছিল। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় চিনির রফতানিকারক দেশগুলোতে দাম বেড়ে গেছে। একটা সময় প্রতি টন অপরিশোধিত চিনির দাম আন্তর্জাতিক বাজারে ৫০০ ডলার ছাড়িয়ে যায়। এখন পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ায় চিনির আমদানি মূল্য কমে এসেছে।’

সচিব জানান, ট্যারিফ কমিশনের পর্যালোচনা অনুযায়ী, পরিশোধিত চিনির গড় আমদানি মূল্য ৪১৬ ডলারে নেমে আসে। আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমার প্রভাব দেশের বাজারে নিশ্চিত করতে মূল্য নির্ধারণ সংক্রান্ত জাতীয় কমিটি চিনির দাম নির্ধারণ করেছে। এতে ভোক্তাপর্যায়ে প্রতি কেজি প্যাকেটজাত চিনির দাম ৮০ টাকা থেকে কমিয়ে ৭৫ টাকা নির্ধারণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। একইভাবে খুচরাপর্যায়ে খোলা চিনির সর্বোচ্চ বাজারদর কেজিতে ৭৪ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

জেডআই/এম. জামান